ছিলে তো কোনো এক মহাপ্রয়াণে মুহাম্মাদ ইমরানের কবিতা

ছিলে তো কোনো এক মহাপ্রয়াণে মুহাম্মাদ ইমরান, ছিলে তো কোনো এক মহাপ্রয়াণে কবি ইমরান, ছিলে তো কোনো এক মহাপ্রয়াণে, Cile to kono ek Mohaprayane, bangla kobita Cile to kono ek Mohaprayane, বাংলা কবিতা ছিলে তো কোনো এক মহাপ্রয়াণে, Cile to kono ek Mohaprayane Muhammad Imran, bangla kobita Cile to kono ek Mohaprayane kobi imran, মুহাম্মাদ ইমরানের ছিলে তো কোনো এক মহাপ্রয়াণে , Poems of muhammad Imran , Muhammad Imran Poet of heart,বাংলা কবিতা ইমরান হাসান রিপন, bangla kobita imran hasan ripon

 

ছিলে তো কোনো এক মহাপ্রয়াণে’ 

এই তো সেদিন আমাতেই ছিলে ।
ছিলে ভীষণ রকমের ‘অধুনা ব্যস্ততায়’
রাগ-গোসসায়, লোভে-ক্ষোভে, অভিমানেও ।
ছিলে খেয়ালে, বেখেয়ালে, দস্যুতায়’
ছিলে সবুজে, সন্দেহে, আত্মিকতার দ্রোহে
ছিলে চোখের উঠানের বিনিদ্র রজনীর পরে
নীলাম্বরী মণিহারপুরে
নজরুলের ‘ প্রিয় কাজী মতিহারে’ ।

নাতিদীর্ঘ ছোঁয়ায় কেমন যেন ছিলে
অতিদূর চুম্বনেও শক্তপোক্ত ছিলে ।
ধরিত্রীর মাঝে আমি ছিলাম অবমুক্ত ধাঙড়
তোমাকে বিমুগ্ধ রাখাটাই ছিল যার
সমবেত অহঙ্কারের নোঙর ।

ছিলে আমার ঠাকরুন
ছিলে আমার পূজার রসদের ব্যঞ্জন ।
আমি তোমার সৌন্দর্যের পুষা কুক্কুর ছিলাম
আমি তোমার একনায়কতান্ত্রিক
ষড়যন্ত্রের মন্ত্রমুগ্ধ বানর ছিলাম ।
কী ছিলে না তুমি আমার ?
আমার দেমাক ছিলে তুমি
হাড় কাঁপানো শীতের মোটা কম্বল ছিলে তুমি ।

আপাতত আমি, রঙিলা রূপবান ।
আমি উন্মুক্ত, মুক্ত বিহঙ্গ, কেউ নেই আমার
আমি প্রমত্ত সাগর, চলি বহমান ।
আমার নাম এখন ‘ছুটি’
কুটিল ভূমে ঘুরেফিরি দিনমান ।

আমি এখন নিজেই একটা সুখের পুটলা’
তুমি কোথায় থাকো, কোথায় তোমার ঘর ,
কোন বেটার বুকের দুর্গন্ধ শুঁকো,
না আবার ঘুমের ভান ধরে থাকো,
কী করো, কী করো না, কই আছ, কেমন আছ ‘
ওসব নিয়ে, নেই আমার কোনো জটলা ।

আমি চিৎকার করে বলতে চাই’
আমি শান্তিতে আছি
মহাকালের পর তথাকথিত এক ‘শান্তি’ ।
আমি চিৎকার করে বলতে চাই’
আমি স্বস্তিতে আছি,
বহু পুরাণের পর তথাকথিত এক ‘স্বস্তি’ ।

মুহাম্মাদ ইমরান
০৮ ১১ ২০১৬

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *