বিপন্ন স্বাধীনতা মুহাম্মাদ ইমরানের কবিতা

বিপন্ন স্বাধীনতা মুহাম্মাদ ইমরান,বিপন্ন স্বাধীনতা কবি ইমরান,বিপন্ন স্বাধীনতা,Biponno Sadhinota Muhammad Imran,bangla kobita Biponno Sadhinota,বাংলা কবিতা বিপন্ন স্বাধীনতা,Biponno Sadhinota Muhammad Imran,bangla kobita Biponno Sadhinota kobi imran,মুহাম্মাদ ইমরানের কবিতা বিপন্ন স্বাধীনতা,Poems of muhammad Imran,Muhammad Imran Poet of heart,বাংলা কবিতা ইমরান হাসান রিপন,bangla kobita imran hasan ripon

 

বিপন্ন স্বাধীনতা   

স্বাধীনতা তুমি, একাত্তরেই থমকে যাওয়া
বিবর্ণ, ধূসর, স্বপ্নিল এক সান্ত্বনা
লক্ষ প্রাণ আর সম্ভ্রমের দামে কেনা
ধ্রুপদী কোনো কল্পনা !

শিশুকাল কাটল তোমার
একনায়কতন্ত্রের ছোবলে
কৈশোর বেলার অমোঘ
উচ্ছ্বাস থেতলে গেলো
সামরিক শাসনের কবলে ।

যৌবনের তাড়নায়
কোথায় এক তেজস্বী ঘোড়া হবে
হায়ানা হয়ে সব অপরাধকে
দুমড়ে-মুচড়ে দিবে অথচ
তোমারি উপর চেপে বসেছে
একনায়কতন্ত্রের আদলে মোড়ানো
স্বৈরতান্ত্রিক এক অদ্ভুত গণতন্ত্র ?

আমার মায়ের ভাষা কেড়ে নেওয়া হবে
না না এটা হতে পারে না,
স্বাধীনতা, তোমার যৎসামান্য মানে
সেই ৫২ থেকেই আমরা বুঝতে শুরু করেছিলাম

শুধুমাত্র বাংলায় কথা কবো
কেবল এতটুকুই চাওয়া ।
তাঁর মাশুল হিসেবে রফিক, শফিক, সালাম,
বরকত সহ কত তাজা প্রাণ !

তারপরও কী এলো বাংলার মুক্তি ?
বাংলায় কথা বলা এখন
লজ্জা-শরমের মাথা খাওয়া এক বিভক্তি
ইংরাজি জানতে হবে, ইংরাজি জানতে হবে !

স্বাধীনতা তুমি, রেল, টার্মিনাল
কিংবা বড় কোনো আঙ্গিনায় শুয়েথাকা
হাজার হাজার মানুষের
কোদাল-কাঁচির তন্ত্র অথবা
থর থর করে শীতের তীব্রতায় কাঁপতে থাকা
দুঃখী ওই মানুষটার অন্তত একটা কম্বলের
নিদারুণ আকুতির ঝাপসা সম্ভাবনার মন্ত্র।

তোমাকে যারা চায়নি
তারাই যখন পতাকা লাগিয়ে
তন্ন তন্ন করে তোমার মাটি চষে বেড়ায়
তখন কোথায় থাকো তুমি, স্বাধীনতা ?

তোমার পিতার পরিবারটা যখন
নিঃশেষ করে দেওয়া হলো তখন কী
তুমি একটি বারের জন্যও লজ্জা পাওনি ?

২১ অগাস্ট গ্রেনেড হামলার সময়
বঙ্গবন্ধু তনয়াকে’ ধূলিসাৎ
করে দেওয়ার প্রচেষ্টায়
তুমি কি আঁতকে উঠেছিলে ?
কোথায় ছিলে তুমি
আমি কী জানতে পারি ?

স্বাধীনতা তুমি ইলিয়াস আলীসহ
হাজার উঠন্ত দামাল ছেলের
গুম হয়ে যাওয়ার বিভীষিকাময় এক গল্প
অথবা অশ্রুর সখ্যতায় একাকার মায়ের
এই বুঝি ফিরে এলো হারিয়ে যাওয়া খোকা
মিথ্যে আশ্বাসের ধূসর বাণী স্বল্প।

অথবা নাম না জানা বৃদ্ধ বাবার
চশমার ফাঁক দিয়ে
দূরের মেঠোপথ তাক করে
অপলক তাকিয়ে থাকার
রুগ্ন চাহুনি মাত্র ।

স্বাধীনতা, শরম করে না তোমার ?
তোমার ঘোষককে যখন ব্রাশ ফায়ার করে
উৎপাটন করে দেওয়া হয় ?

তিনবারের প্রধানমন্ত্রীকে যখন
বালির ট্রাক দিয়ে আটকে রাখা হয়
নিশ্চয়ই তুমি পালিয়ে যেতে চেয়েছিলে
অন্য কোনো ভুবনে
নতুন কোনো দেশে, অন্য কোনো বেশে
যে দেশের মানুষ তোমার মানেটা অন্তত বোঝে।

স্বাধীনতা, তুমি কী আসলেই স্বাধীনতা ?
নাকি বিপন্ন, বিবস্ত্র, বিদীর্ণ, কাদামাখা,
ধুম্রজালে ভরা, একমুঠো নগ্ন বাসনা !

মুহাম্মাদ ইমরান
০৯ ১ ১৬

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *